জানেন কি?

কপিরাইট vs পেটেন্ট vs ট্রেডমার্ক

কপিরাইট, পেটেন্ট ও ট্রেডমার্ক তিনটিই বুদ্ধিবিত্তিক কাজের মালিকানা Intellectual Property সংরক্ষণের উপায়।  তবে এদের মাঝে প্রায়োগিক কিছু পার্থক্য রয়েছে।

কপিরাইট বুদ্ধিবৃত্তিক সৃজনশীল কাজ যেমন শিল্প, সাহিত্য, সঙ্গীত, নাটক, চলচ্চিত্র ইত্যাদির মৌলিক সৃষ্টিকর্মের মালিকানা বা স্বত্বাধিকারী নিশ্চত করে যার আওতায় কপিরাইটের অধিকারী ব্যক্তি সেই সৃজনশীল কাজের প্রকাশ, প্রচার, পুনরুৎপাদন এবং বিতরণের আইনসিদ্ধ অধিকার লাভ করেন।

পেটেন্ট সাধারণত কোন বৈজ্ঞানিক কিংবা প্রযুক্তিগত উদ্ভাবনের উৎপাদন ও বিতরণগত অধিকারের সুরক্ষা প্রদান করে।  নতুন বৈজ্ঞানিক আবিস্কার, প্রযুক্তিগত উদ্ভাবন, ঔষধ, ব্যবসা পদ্ধতি, সফটওয়্যার ইত্যাদির মালিকানা সংরক্ষণে পেটেন্ট ব্যবহৃত হয়।

অন্যদিকে ট্রেডমার্ক কোন শব্দ, বাক্য, প্রতীক (symbol) কিংবা নকশার (design) হতে পারে, যা কোন ব্যবসায়িক পণ্যকে অন্যদের থেকে আলাদা করতে সহায়তা করে।  ব্রান্ডের নাম, লোগো, স্লোগানের ট্রেডমার্ক হতে পারে।


ওপেন একসেস কি কপিরাইট বিরুদ্ধ?

ওপেন একসেস এর সাথে সবচেয়ে বড় যে প্রশ্নটি চলে আসে তা হলো ওপেন একসেস কপিরাইট এর বিরুদ্ধ কিনা? উত্তর হলো ওপেন একসেস মোটেও কপিরাইট-বিরুদ্ধ নয় বরং এটি অনেকাংশে কপিরাইট এর সুরক্ষা প্রদান করে থাকে। বর্তমানে বিভিন্ন Open Content License পাওয়া যায়। Creative Commons এগুলোর মধ্যে অন্যতম। এই লাইসেন্সের আওতায় লেখক বা শিল্পী কিংবা গবেষক তাঁর মৌলিক কর্ম ব্যবহারের সীমারেখা নির্ধারণ করে দিতে পারেন। যেমন লেখক চাইলে তাঁর কাজকে এমনভাবে উন্মুক্ত করে দিতে পারেন যে, যে কেউ তাঁর কাজ ব্যবহার করতে পারবেন কিন্তু অবশ্যই লেখকের প্রাপ্তি স্বীকার করতে হবে। কিংবা ব্যবহারকারী শুধু ব্যবহার করতে পারবেন তিনি কোন ধরনের পরিবর্তন আনতে পারবে না। অথবা ব্যবহারকারী বাণিজ্যিক কাজে ব্যবহার করতে পারবে না। এইসব Open Content License এর মাধ্যমে একদিকে মূল লেখকের প্রাপ্তি স্বীকার করা হবার পাশাপাশি মৌলিক কাজের উন্মুক্ত ব্যবহারও নিশ্চিত হয়।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close