বাংলা ভাষায় প্রকাশিত প্রথম গ্রন্থাগার পেশা বিষয়ক মাসিক অনলাইন সাময়িকী

logo

librariansvoice@gmail.com

ওপেন একসেস (Open Access) প্রসারে লাইব্রেরি পেশাজীবীদের করণীয়

Access ও Open Access Materials প্রসারে একজন লাইব্রেরিয়ান কি কি ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখতে, তাই নিয়ে আমাদের এই বিশেষ আয়োজন।প্রবন্ধটি লাইব্রেরিয়ান ভয়েসের জন্যে অনুবাদ করেছেন এডিটোরিয়াল বোডের্র সদস্য অন্তরা আনোয়ার।


গ্রন্থ ও তথ্যের জন্য একটি ওপেন একসেস, ওএআই-সঙ্গতিপূর্ণ প্রাতিষ্ঠানিক ই-প্রিন্ট আর্কাইভস চালু করাঃ

  • বিশ্ববিদ্যালয়গুলির জন্য প্রতিষ্ঠানীয় রিপোজিটরির প্রধান কারণ হল দৃশ্যমানতা, পুনরুদ্ধারযোগ্যতা, এবং গবেষণা প্রভাব উন্নত করা। এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজের মান, অনুষদের মান ও বিশ্ববিদ্যালয়ের মান বাড়াতে সাহায্য করবে।
  • আরো নির্দিষ্ট কারণ হলো বেশিসংখ্যক লেখক তাদের পোস্টপ্রিন্ট প্রতিষ্ঠানকে জমা দেয় কিন্তু বৈষয়িক রিপোজিটরিতে জমা দেয় না। রিপোজিটরিবিহীন প্রতিষ্ঠানের অনুষদগণ তাদের কাজ নিয়ে ঝামেলায় পড়েন কেননা তাদের বিভিন্নদিকে ঘুরতে হয় ওপেন অ্যাক্সেসের জন্য।
  • “ওএআই-সঙ্গতিপূর্ণ” মানে আর্কাইভটি ওপেন আর্কাইভ ইনিশিয়েটিভ (ওএআই) এর মেটাডাটা সংগ্রহের প্রোটোকল মেনে চলে। এটি আর্কাইভকে অন্যান্য আর্কাইভগুলির সাথে আন্তঃক্রিয়াশীল করে তোলে যাতে অনেক পৃথক আর্কাইভ একসাথে বড় ভার্চুয়াল আর্কাইভের মত কাজ করতে পারে তথ্য খোজার জন্য। এটি একই ইন্টারফেসে ভিন্ন ভিন্ন আর্কাইভে ব্যবহারকারীদের তথ্য অনুসন্ধানে সাহায্য করবে। সুতরাং, এটা তথ্যগুলোকে আরো দৃশ্যমান করে তোলে, এমনকি যদি ব্যবহারকারীরা তাদের তথ্যের উপস্থিতি সম্পর্কে অজ্ঞাত থাকেন। http://www.openarchives.org/
  • ওপেন একসেস তৈরি করার জন্য প্রায় ডজনখানেক প্যাকেজ বা সফটওয়্যার রয়েছে। চারটি গুরুত্বপূর্ণ প্যাকেজ বা সফটওয়্যারগুলো হল ইপ্রিন্টস (সাউথাম্পটন ইউনিভার্সিটি), ডিস্পেস (এমআইটি), সিডিএসওয়্যার (সিইআরএন) এবং ফেডোরা (কর্নেল এবং ইউ অব ভার্জিনিয়া)। http://www.eprints.org/software/

অনুষদগণকে তাদের গবেষণা নিবন্ধ প্রাতিষ্ঠানিক আর্কাইভে জমা দিতে সাহায্য করাঃ

  • অনেক অনুষদ এ বিষ্যে ইচ্ছুক কিন্তু ব্যস্ত। কেউ কেউ টেকনোলজিকে ভয় করেন এবং কারো কারো এর সুবিধা সম্পর্কে শিক্ষা প্রয়োজন।

উদাহরণস্বরূপ, কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরিগুলি কর্মকর্তা নিয়োগ করেছেন যারা অনুষদগণ, অফিস থেকে অফিসে, পরিদর্শন করে কপি সংগ্রহ করে জমা দিতে সাহায্য করে। সেন্ট অ্যান্ড্রুস ইউনিভার্সিটি লাইব্রেরির ইমেল সংযুক্তি হিসাবে অনুষদের অনুরোধ করে তাদের নিবন্ধ পাঠাতে এবং লাইব্রেরী কর্মীরা তা প্রতিষ্ঠানে জমা করবে।

একটি ওপেন একসেস জার্নাল প্রকাশনা পদক্ষেপ গ্রহণ:

  • মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফিলোসফার্স ইমপ্রিন্ট একটি পিয়ার রিভিউ ওপেন একসেস জার্নাল যার মূলমন্ত্র হচ্ছে “Edited by philosophers. Published by librarians. Free to readers of the Web”, অর্থাৎ দার্শনিক দ্বারা সম্পাদিত। গ্রন্থাগারিক দ্বারা প্রকাশিত। ওয়েব পাঠকদের জন্য বিনামূল্য।” কারণ সম্পাদক এবং প্রকাশক (অনুষদ এবং গ্রন্থাগারিক) ইতিমধ্যে হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বেতনভূক্ত। ফিলোসফার্স ইমপ্রিন্ট বিশ্ববিদ্যালয়েরি একটি উদ্যোগ যে কারণে তৈরী ফি দরকার পরেনা। http://www.philosophersimprint.org/
  • জার্নাল অব ইনসেক্ট সায়েন্স টুসন বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যারিজোনা বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রন্থাগার প্রকাশ করে থাকে। http://www.insectscience.org/
  • বস্টন কলেজ লাইব্রেরিগুলি বিসি অনুষদ কর্তৃক সম্পাদিত ওপেন একসেস জার্নাল প্রকাশ করে। http://www.bc.edu/libraries/
  • ওপেন এক্সেস জার্নাল অফ ডিজিটাল ইনফরমেশন প্রকাশিত হয় টেক্সাস এ অ্যান্ড এম ইউনিভার্সিটি লাইব্রেরি। http://jodi.tamu.edu/
  • বড় চুক্তি বাতিল, অথবা জার্নাল বাতিল বিবেচনা করা যেগুলো উচ্চ মূল্য ন্যায্যতা বৈধতা করতে অপারগ এবং একটি সর্বজনীন ব্যাখ্যা প্রদান করবে
  • অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলির তালিকা দেখা যারা ইতিমধ্যেই এমনটি করেছে। যদি তারা সাহস এবং ধারনা দেয় তাহলে বুঝতে হবে এমনটি অন্যের ক্ষেত্রেও করা সম্ভব। http://www.earlham.edu/~peters/fos/lists.htm#actions
  • অনুষদের সিনেট, বা লাইব্রেরি কমিটিতে বা পৃথক বিভাগে উপস্থাপনা দেওয়া, ফ্যাকাল্টিগ্ণ ও প্রশাসকদের সঙ্গে পাণ্ডিত্যপূর্ণ যোগাযোগ সঙ্কট সম্পর্কে ধারণা দেওয়া এবং ওপেন একসেস কিভাবে কোন ব্যাপক সমস্যার সমাধান করবে তা তাদের কাছে তুলে ধরা। এসব ক্ষেত্রে অনুষদ এবং প্রশাসনিক সমর্থন প্রয়োজন হবে যেখানে অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এটি প্রয়োগে সফল হয়েছে।

স্থানীয় গোষ্ঠীর ব্যাপারে দৃষ্টিপাত করা:

  • অনুষদের পাশাপাশি স্থানীয় গোষ্ঠীর জন্যও ডিজিটাইজেশন, অ্যাক্সেস এবং সংরক্ষণ সুনিশ্চিত করা।উদাহরণস্বরুপ, অলাভজনক, কমিউনিটি প্রতিষ্ঠান, যাদুঘর, গ্যালারী, লাইব্রেরি। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মত অপ্রাতিষ্টানিক সম্প্রদায়কে ওপেন একসেস সুবিধাগুলি দেখানো উচিত।

Consortium-এ যোগদান করা:

  •  SPARC (একাডেমিক লাইব্রেরি কনসোর্টিয়াম) যোগ দেওয়া যারা সক্রিয়ভাবে ওপেন একসেসের প্রচার। http://www.arl.org/sparc/

ট্যাক্সপেইয়ার একসেসে:

  • ট্যাক্সপেইয়ার একসেসের জন্য জোটে যোগদান করা যা যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক একটি অলাভজনক সংস্থা যারা ওপেন একসেসের কাজ করছে সরকারিভাবে অর্থায়নকৃত গবেষণাগুলো নিয়ে। যদি আপনার পুরো বিশ্ববিদ্যালয়কে এর আওতাভূক্ত করতে পারেন তবে সবচেয়ে ভালো

তথ্যসূত্র:

http://www.taxpayeraccess.org/member.html

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *